চীনকে কোণঠাসা করতে আসছে রুশ জঙ্গি বিমানের ঝাঁক

0
49

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) উত্তেজনার আবহে দ্রুত বায়ুসেনার শক্তিবৃদ্ধির দিকে নজর দিচ্ছে ভারত সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ভারতীয় বিমান বাহিনীর বহরে যুক্ত হচ্ছে রাশিয়ার তৈরি শক্তিশালী সুখই ও মিগের মত আগ্রাসি মাল্টিরোল কম্বেট জেট।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) কলকাতাভিত্তিক সংবাফমাধ্যম আনন্দবাজার প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য মতে, দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের উপস্থিতিতে ‘প্রতিরক্ষা ক্রয় পর্ষদে’র (ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিল বা ডিএসি) বৈঠকে ৩৩টি নতুন রুশ যুদ্ধবিমান কেনার প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২টি সুখোই-৩০ এমকেআই মাল্টিরোল এয়ার সুপিরিওরিটি ফাইটার জেট এবং ২১টি মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, দেশটির বায়ুসেনার ৫৯টি মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান আধুনিকীকরণের মাধ্যমে শক্তিবৃদ্ধির সিদ্ধান্তও নেয়া হয়েছে।

এছাড়া রাজনাথের সভাপতিত্বে এদিনের বৈঠকে ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থার (ডিআরডিও) থেকে ২৪৮টি ‘অস্ত্র’ মিসাইল কেনারও সিদ্ধান্ত হয়েছে বলেও জানা গেছে। ৩০০ কিলোমিটার পাল্লার এই ‘এয়ার টু এয়ার’ ক্ষেপণাস্ত্রটি ইলেকট্রো-অপটিক্যাল ট্র্যাকিং সেন্সরের সাহায্যে দৃষ্টিসীমার বাইরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

বর্তমানে ভারতীয় বায়ুসেনার সুখোই-৩০, মিগ-২৯ এবং তেজস যুদ্ধবিমান ‘অস্ত্র’ নামক এই বিধ্বংসী আল্ট্রা ভিজ্যুয়ালিটি ক্যাপেবিলিটি সম্পন্ন মিসাইল ব্যবহার করছে।

পাশাপাশি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তার বরাতে পাওয়া বিশেষ সূত্রের তথ্য বলছে, এদিন ডিএসি’র বৈঠকে ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য ১,০০০ কিলোমিটার পাল্লার ‘ক্রুজ’ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির প্রস্তাবটিও ছাড়পত্র পেয়েছে। ডিআরডিও এই ক্ষেপাণাস্ত্রের নকশা প্রস্তুত করা এবং নির্মাণের দায়িত্ব পাবে।

সামরিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা, ভারত মহাসাগরে চীনা নৌবহরের সাম্প্রতিক তৎপরতা বৃদ্ধি নজরে রেখেই ভারতীয় নৌবাহিনীর ভাঁড়ারে নয়া ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র অন্তর্ভুক্তির এই উদ্যোগ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here